ড্রাইভিং লাইসেন্স ® [পর্ব-১] [ Leraner/শিক্ষানবিশ DL ]

ড্রাইভিং লাইসেন্স ছাড়া মোটরযান চালানো আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ। নিরাপদ সড়কের দাবিতে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা চালকের লাইসেন্স ও গাড়ির কাগজপত্র পরীক্ষা শুরু করার পর থেকে গাড়ি চালানোর অনুমতি (ড্রাইভিং লাইসেন্স)পেতে এবং যানবাহনের কাগজপত্র নবায়ন করতে বাংলাদেশ রোড ট্রান্সপোর্ট অথরিটির(BRTA)কার্যালয়ে হঠাৎ ভীড় বেড়ে গেছে।  অনেকে আছে যারা জানেন না ড্রাইভিং লাইসেন্স পেতে হলে কী করতে হয়।

Learner Driving License বা শিক্ষানবিশ ড্রাইভিং লাইসেন্স হল ড্রাইভিং লাইসেন্সের পূর্বশর্ত।
তাই গ্রাহককে প্রথমে Learner DL-এর জন্য প্রয়োজনীয় কাগজপত্রসহ আবেদন করতে হবে।

শিক্ষানবিশ ড্রাইভিং লাইসেন্স(Leraner DL) এর আবেদন প্রক্রিয়াঃ-
গ্রাহককে তার স্থায়ী ঠিকানা বা বর্তমান ঠিকানা(প্রয়োজনীয় প্রমাণাদিসহ) বিআরটিএ যে সার্কেলের আওতাভূক্ত তাকে সেই সার্কেল অফিসে আবেদন করতে হবে। সার্কেল অফিস কর্তৃপক্ষ তাকে একটি শিক্ষানবিস বা লার্নার ড্রাইভিং লাইসেন্স প্রদান করবে যা দিয়ে আবেদনকারী ড্রাইভিং প্রশিক্ষণ গ্রহণ করতে পারবে।(নিচে একটি Lerner DL এর অনুলিপি দেয়া হল)।

মাস প্রশিক্ষণ গ্রহণের পর তাকে নির্ধারিত তারিখ সময়ে নির্ধারিত কেন্দ্রে লিখিত, মৌখিক ফিল্ড টেস্ট- অংশ গ্রহণ করতে হবে। এসময় প্রার্থীকে তার লার্নার বা শিক্ষানবিশ ড্রাইভিং লাইসেন্স (মূল কপি) লিখিত পরীক্ষায় অংশগ্রহণের জন্য কলম সাথে আনতে হবে। 
ড্রাইভিং লাইসেন্স পাওয়ার বয়সঃ-
পেশাদার ঃ নূন্যতম ২০বছর 
অপেশাদারঃ নূন্যতম ১৮ বছর।

Learner/শিক্ষানবিশ ড্রাইভিং লাইসেন্স এর জন্য প্রয়োজনীয় কাগজপত্র:

১। নির্ধারিত ফরমে আবেদন।
২।রেজিষ্টার্ড ডাক্তার কর্তৃক মেডিকেল সার্টিফিকেট।
৩। ন্যাশনাল আইডি কার্ড / জন্ম সনদ/পাসপোর্ট এর সত্যায়িত ফটোকপি।
৪। নির্ধারিত ফী, ১ ক্যাটাগরি-৩৪৫/-টাকা ও ২ ক্যাটাগরি-৫১৮/-টাকা বিআরটিএ’র নির্ধারিত ব্যাংকে (ব্যাংক এর তালিকা www.brta.gov.bd –তে পাওয়া যাবে) জমাদানের রশিদ।
৫। সদ্য তোলা ০১ কপি পাসপোর্ট ০৩ কপি স্ট্যাম্প সাইজের  ছবি।

লার্নার ড্রাইভিং লাইসেন্স ফী: 

(ক) ০১ (এক) ক্যাটাগরি-৩৪৫/-টাকা (শুধু মোটরসাইকেল অথবা শুধু হালকা মোটরযান অর্থাৎ যে কোনো এক ধরণের মোটরযান)
(খ) ০২ (দুই) ক্যাটাগরি-৫১৮/-টাকা  (মোটরসাইকেল এবং হালকা মোটরযান একসাথে অর্থাৎ মোটরসাইকেলের সাথে যে কোনো এক ধরণের মোটরযান)

শেয়ার করুন

0 comments: