গ্যালাক্সি ওয়াচ’- নতুন স্মার্ট ঘড়ি

এরই মধ্যে সবারই হয়তো জানা হয়ে গেছে, গত ৯ আগস্ট থেকে গ্যালাক্সি নোট ৯-এর অগ্রিম অর্ডার নেওয়া শুরু করেছে বিশ্বখ্যাত প্রযুক্তিপণ্য প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান স্যামসাং। এটাও শোনা যাচ্ছে যে তারা ২৪ আগস্ট থেকে নতুন এই ফ্ল্যাগশিপ ফোনের শিপিং শুরু করবে। তবে সবার যেটা জানা নেই তা হলো, এই ফোনের সঙ্গে সঙ্গেই স্যামসাং নিয়ে এসেছে স্মার্ট ওয়াচের নতুন একটি সংস্করণও। যার নাম দেওয়া হয়েছে ‘দ্য গ্যালাক্সি ওয়াচ’।
স্যামসাং ইলেকট্রনিকস আমেরিকার সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট জানান, গ্যালাক্সি অনেক বড় এবং সুপরিচিত একটি ব্র্যান্ড, যা সবচেয়ে মানসম্পন্ন পণ্যের নিশ্চয়তা দিয়ে থাকে। আর এই ঘড়িটি সেই মানের সেবা দিতে পারবে বলেও আশাবাদ ব্যাক্ত করেন তিনি।
৪২ আর ৪৬ মিলিমিটারের দুটি ভিন্ন আকারে আর শক্তিশালী ব্যাটারি নিয়ে এই ঘড়ি তৈরি করা হয়েছে। ৪২ মিলিমিটারের ব্লুটুথ ভার্সন গ্যালাক্সি ওয়াচের দাম শুরু হবে ৩২৯.৯৯ ইউএস ডলার আর ৪৬ মিলিমিটারের ব্লুটুথ ভার্সনের দাম শুরু হবে ৩৪৯.৯৯ ইউএস ডলার থেকে। বিশ্বের ১৫টির বেশি দেশের ৩০টির বেশি অপারেটরের নেটওয়ার্ক সমর্থন করবে এই ঘড়িতে। মিডনাইট ব্ল্যাক আর রোজ গোল্ড এই দুটি রঙে পাওয়া যাবে ৪২ এমএম মডেলটি আর ৪৬ এমএম মডেলটি মিলবে শুধু কালো রঙে।
অ্যাপল ওয়াচের মতো স্যামসাংও গুরুত্ব দিয়েছে ফিটনেস আর ওয়েলবিং ফিচারের ওপর। সম্প্রতি স্যামসাং এমন একটি অ্যাপ এনেছে, যাতে ব্যবহারকারীর স্ট্রেস লেভেলের ওপর লক্ষ রাখতে আর কমাতে সাহায্য করবে। এতে আরো থাকছে স্লিপ ট্র্যাকিংয়ের ব্যবস্থা, যাতে করে ব্যবহারকারী জেনে নিতে পারবেন, দৈনিক ঘুমের পরিমাণ ঠিকঠাক থাকছে কি না।
স্যামসাংয়ের নিজস্ব অপারেটিং সিস্টেম ‘টাইজেন’-এ চলবে এই ঘড়িটি, যা অপারেট করতে হবে ঘোরানোর উপযোগী বেজেল দিয়ে। আর সে অভিজ্ঞতা আপনার থেকে থাকবে যদি আপনি স্যামসংয়ের আগের কোনো স্মার্ট ওয়াচ ব্যবহার করে থাকেন।
তবে সবকিছু ছাপিয়ে যে বিষয়টি লক্ষণীয়, তা হলো এর ব্যাটারি লাইফ। ৪২ এমএম-এর ঘড়িটি একবার চার্জে চার দিন চলবে আর ৪৬ এমএম-এর ঘড়িটি চলবে ৬ দিন পর্যন্ত, যেখানে অ্যাপল ওয়াচে চার্জ থাকে গড়পরতা একদিন। তাদের দাবি আসলে কতটুকু সত্য, এখন সেটাই দেখার বিষয়।

শেয়ার করুন

0 comments: